বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:১০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
দালাল-বেঈমানের জন্মদাতা কুখ্যাত ইব্রাহিমকে পাহাড়ি জনগণ কখনই ক্ষমা করবে না! টেকনাফে আদালতের আদেশ অমান্য করে জমি দখলের চেষ্টা খাগড়াছড়িতে অটোরিকশা চালকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার থানচি বাজার সড়কের বেহাল দশা, জনদুর্ভোগ চরমে ফিলিস্তিন সংকট:বেসামরিক নাগরিকদের গাজা ত্যাগের জন্য সময় নির্ধারণ করাই ইসরাইলের উদ্দেশ্য কুতুবদিয়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা ইসরায়েল থেকে রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার করলো তুরস্ক মাস্ক পরে অনুশীলনে বাংলাদেশ, দিল্লিতে ম্যাচ নিয়েও শঙ্কা গর্জনিয়ায় পানিতে ডুবে হেফজখানার ছাত্রের মৃত্যু পাকিস্তানের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের রানের পাহাড়

কক্সবাজারে কাজী পরিচয়ে প্রতারণা, আটক ২

ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩
  • ২৭ পঠিত

কক্সবাজারে কাজী পরিচয়ে প্রতারণার মামলায় ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলেন, সদরের ঝিলংজা মুহুরী পাড়ার জয়নাল আবেদীনের ছেলে আবদুল খালেক (৩২) ও টেকনাফের হোয়াইক্যং ওরি আমগাছ তলা এলাকার বাসিন্দা আকতার কামাল নূরীর ছেলে রমিজ কামাল (২৭)।

বুধবার (৮ ফেব্রুযারি) দিবাগত রাতে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। পরেরদিন বৃহস্পতিবার তাদের কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার সদর মডেল থানার এসআই ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মিঠুন সিংহ।

তিনি জানান, কাজী পরিচয়ে আইন বহির্ভুতভাবে বিয়ে নিবন্ধনসহ নানা প্রতারণার অভিযোগে ৫ জনের বিরুদ্ধে গত ১ ফেব্রুয়ারী থানায় মামলা করেন মোহাম্মদ সাইফুল্লাহ। যার মামলা নং- ০২/৬৬। তিনি কক্সবাজার পৌরসভার ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের কাজী এবং ঝিলংজা ইউনিয়নের অতিরিক্ত কাজী। মামলার অপর ৩ আসামি হলেন, সদরের ঝিলংজা খরুলিয়া এলাকার বাঁচা মিয়ার ছেলে জহির উদ্দিন (৪৫), ঝিলংজা ১নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ আদর্শ গ্রামের বাসিন্দা পিয়ার মুহাম্মদের ছেলে রফিকুল ইসলাম (৫০) ও খুরুশকুল গাজীর ডেইল এলাকার মৃত মোজাফ্ফর আহমদের ছেলে মনজুর আলম (৫৫)। এতে আরো ২ জন অজ্ঞাতনামা আসামি রয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা ও আশেপাশের এলাকায় সরকারের অনুমোদন ছাড়াই বিবাহ নকল বালাম বই ও সীল তৈরি করে বাল্যবিয়েসহ নিকাহ নিবন্ধন করে আসছিল একটি চক্র। চক্রটি বিভিন্ন আবাসিক হোটেল ও বাসা বাড়িতে গিয়ে গোপন বিয়ে পড়াতো। কাজী পরিচয় ও ঘটকালি করে হাতিয়ে নিতো মোটা অংকের টাকা। ইতোমধ্যে চক্রের ফাঁদে পড়ে ঠকেছে অনেক সহজ সরল মানুষ। ভেঙেছে বহু প্রবাসীর সংসার।

অভিযোগ রয়েছে, নিজ এলাকার বাইরে গিয়ে বিধি বহির্ভূতভাবে বিবাহ নিবন্ধন করা এবং কাজী নয়, এমন লোকও বিভিন্ন আবাসিক হোটেল ও বাসা বাড়িতে গিয়ে গোপন বিয়ে পড়াচ্ছে। এতে প্রকৃত কাজীদের সুনাম ক্ষুণ্ণ হওয়ার পাশাপাশি সাধারণ মানুষও প্রতারিত হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে জেলা রেজিস্ট্রার মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, কাজী পরিচয়ে কেউ প্রতারণা করলে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। নিবন্ধিত কোন কাজীর বিরুদ্ধে অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইন মন্ত্রণালয় ব্যবস্থা নিবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Let's check your brain 22 − = 13

একই ধরনের আরও সংবাদ
© All rights reserved 2022 CHT 360 degree