বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:১১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দালাল-বেঈমানের জন্মদাতা কুখ্যাত ইব্রাহিমকে পাহাড়ি জনগণ কখনই ক্ষমা করবে না! টেকনাফে আদালতের আদেশ অমান্য করে জমি দখলের চেষ্টা খাগড়াছড়িতে অটোরিকশা চালকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার থানচি বাজার সড়কের বেহাল দশা, জনদুর্ভোগ চরমে ফিলিস্তিন সংকট:বেসামরিক নাগরিকদের গাজা ত্যাগের জন্য সময় নির্ধারণ করাই ইসরাইলের উদ্দেশ্য কুতুবদিয়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা ইসরায়েল থেকে রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার করলো তুরস্ক মাস্ক পরে অনুশীলনে বাংলাদেশ, দিল্লিতে ম্যাচ নিয়েও শঙ্কা গর্জনিয়ায় পানিতে ডুবে হেফজখানার ছাত্রের মৃত্যু পাকিস্তানের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের রানের পাহাড়

টেকনাফ সাবরাং ট্যুরিজম পার্কের প্রশাসনিক ভবনের ভার্চুয়ালি উদ্বোধন

ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত: রবিবার, ২০ নভেম্বর, ২০২২
  • ৩৯ পঠিত

কক্সবাজার টেকনাফ সাবরাং ট্যুরিজম পার্কের প্রশাসনিক ভবনসহ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারাদেশে অর্থনৈতিক অঞ্চলে (ইজেড) ৫০টি শিল্প ইউনিট, প্রকল্প ও স্থাপনা উদ্বোধন করেছেন।

রবিবার (২০ নভেম্বর) সকালে গণভবন থেকে দেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ভার্চুয়ালি ইজেড গুলোতে শিল্প প্রতিষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।

৫০টি শিল্প স্থাপনার মধ্যে চট্টগ্রামের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরে (বিএসএমএসএন) চারটি কারখানা এবং বেসরকারিভাবে পরিচালিত বিভিন্ন ইজেডে আটটি কারখানা খোলা হয়েছে। এই শিল্প ইউনিটগুলো ইতোমধ্যেই ডলার ৯৬৭.৭৩ মিলিয়নের বেশি বিনিয়োগ করেছে এবং প্রায় ডলার ৩৩১.২৭ মিলিয়নের আরও বিনিয়োগ করবে।

প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন ইজেড-এ ২৯টি শিল্প ইউনিটের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন, যেগুলো এখন পর্যন্ত ৬১০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে এবং আর ১,৯২২.৩৯ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। বিএসএমএসএন, জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চল, শ্রীহট্ট ইজেড এবং সাবরাং ট্যুরিজম পার্কের প্রশাসনিক ভবন উদ্বোধন করা হয়।

তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে বিএসএমএসএন-এ ২০-কিলোমিটার শেখ হাসিনা সরণি, ২৩০-কেভিএ গ্রিডলাইন এবং সাবস্টেশন উদ্বোধন করেন এবং প্রতিদিন ৫০ মিলিয়ন লিটার (এমএলডি) ক্ষমতা সম্পন্ন একটি পানি শোধনাগারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

উদ্বোধন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‌একটা সমাজে সকলে মিলে কাজ করতে হবে। যুব ও নারী সমাজ এবং প্রত্যেক উদ্যোক্তা যদি কাজ করে আমরা বাংলাদেশকে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে পারবো। এই ভূখণ্ড জাতির পিতা স্বাধীন করে দিয়ে গেছেন। এ অঞ্চলের মানুষ সারা বিশ্বে মাথা উঁচু করে চলবে। বিজয়ী জাতি হিসেবে আমরা মাথা উঁচু করে চলবো। কারো কাছে হাত পেতে চলবো না, নিজের পায়ে দাঁড়াবো, এবং নিজের ফসল নিজে উৎপাদন করব, নিজে খাব অন্যকে দিব, আর শিল্পায়নের মাধ্যমে উৎপাদন বৃদ্ধি করে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি আমরা নিয়ে আসব।

চট্টগ্রামে বিএসএমএসএন প্রান্ত থেকে স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান শেখ ইউসুফ হারুন।

অনুষ্ঠানে বেজার উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের ওপর একটি ভিডিও ডকুমেন্টারি প্রদর্শন করা হয়।

অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলো জাপান, চীন, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, নেদারল্যান্ডস, জার্মানি, আমেরিকা, যুক্তরাজ্য, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া এবং নরওয়েসহ বিভিন্ন দেশ থেকে সরাসরি বিদেশী বিনিয়োগ আকৃষ্ট করেছে।

এ উপলক্ষে টেকনাফ সাবরাং ট্যুরিজম পার্কে ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠানে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মামুনুর রশিদ, কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমোডর মোহাম্মদ নুরুল আবছার, স্থানীয় সংসদ সদস্য (উখিয়া-টেকনাফ) শাহীন আক্তার চৌধুরী, কক্সবাজার-রামু আসনের এমপি সাইমুম সরওয়ার কমল, মহেশখালী-কুতুবদিয়া’র এমপি আশেক উল্লাহ রফিক,কক্সবাজার জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহীনুল হক মার্শাল, জেলা পুলিশ সুপার মাহফুজুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান, জেলা যুবলীগের সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুর, টেকনাফ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল আলম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) এরফানুল হক চৌধুরী, টেকনাফ মডেল থানার (ওসি) আব্দুল হালিম ও উপজেলার রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, জনপ্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Let's check your brain 1 + = 2

একই ধরনের আরও সংবাদ
© All rights reserved 2022 CHT 360 degree