মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০২৩, ০১:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ব্রিটেনের সিরাজাম মুনিরা মসজিদে আবারো খ্রিস্টান যুবকের ইসলাম গ্রহণ খাগড়াছড়িতে অতিরিক্ত দামে ব্রয়লার মুরগি বিক্রির অভিযোগে ২ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা প্রথম মুসলিম প্রধানমন্ত্রী পেল স্কটল্যান্ড সৌদি আরবে বাস দুর্ঘটনায় ২০ ওমরাহ যাত্রী নিহত জুরাছড়িতে সেনাবাহিনীর ফ্রী মেডিক্যাল ক্যাম্প এপ্রিলে বাজারে আসছে ৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার রিয়েলমি সি৫৫ কক্সবাজারে অপহৃত ৩ ব্যক্তি উদ্ধার, আটক ২ বৃষ্টি বাধায় ২০৭ রানেই শেষ হলো বাংলাদেশের ইনিংস রাঙামাটি রিজিয়নের সেনাবাহিনী কর্তৃক কৃতি ক্রীড়াবিদদের সংবর্ধনা পানছড়িতে বিদ্যালয়ের ভবন উদ্বোধনে কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি

মিয়ানমারের সামরিক সরকারকে ‘অবিলম্বে’ গণতান্ত্রিক ধারায় ফিরতে হবে: জাতিসংঘ

ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত: শনিবার, ১২ নভেম্বর, ২০২২
  • ১৫ পঠিত

মিয়ানমারের সামরিক সরকারকে ‘অবিলম্বে’ গণতান্ত্রিক ধারায় ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেন, দেশকে ঘিরে থাকা ‘দুঃস্বপ্ন’ বন্ধের এটিই একমাত্র পথ।

শনিবার (১২ নভেম্বর) কম্বোডিয়ার রাজধানী নমপেনে এক সম্মেলনে যোগ দিয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি। খবর ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি’র।

মিয়ানমারজুড়ে যে সহিসংতা চলছে তা বন্ধ করতে দেশটির জান্তা সরকারকে ব্যাপক চাপ দিয়ে আসছে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর জোট আসিয়ানসহ ইউরোপীয় ইউনিয়ন। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। কোনও পরামর্শ বা আহ্বান আমলে নিচ্ছেন মিয়ানমার সামরিক সরকার। এতে দেশটির পরিস্থিতি আর খারাপের দিকে এগোচ্ছে। ক্রমবর্ধমান সংকট নিয়ে আসিয়ানের শীর্ষ সম্মেলনে প্রাধান্য পেয়েছে মিয়ানমার ইস্যু, দেশটির রক্তপাত এড়াতে এখন পর্যন্ত কূটনৈতিক চেষ্টা ব্যর্থ বলা চলে।

এ পরিস্থিতিতে জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, মিয়ানমারের পরিস্থিতি জনগণের জন্য একটি অন্তহীন দুঃস্বপ্ন ও পুরো অঞ্চলের শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য মারাত্মক হুমকি। আমি মিয়ানমারের কর্তৃপক্ষকে তাদের জনগণের কথা শুনতে, রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তি এবং দ্রুত গণতান্ত্রিক ধারায় ফিরিয়ে আসার আহ্বান জানাচ্ছি। স্থিতিশীলতা ও শান্তির এটাই একমাত্র পথ।’

আসিয়ানের সদস্য হওয়ায় মিয়ানমারকে কয়েকটি শর্তজুড়ে দেওয়া হয়েছে। মূলত দেশটিতে স্থিতিশীলতা ফেরাতে জান্তা সরকারকে চাপ দিয়ে আসছে। গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে সু চি’র সরকারকে জোরপূর্বক ক্ষমতা সরিয়ে দেয় মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী। এরপর তারা ক্ষমতায় বসে। সু চিসহ বহু রাজনৈতিক, সাংবাদিককে আটক করে কারাগারে রেখে বিচার কাজ চালাচ্ছে। জান্তাকে ক্ষমতা ছাড়তে দেশজুড়ে আন্দোলন অব্যাহত রেখেছে মিয়ানমার জনগণ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Let's check your brain 8 + 1 =

একই ধরনের আরও সংবাদ
© All rights reserved 2022 CHT 360 degree